‘মেসিদের সাফল্যে গার্দিওলার অবদান নেই’

ফ্রাঙ্ক রাইকার্ডকে হারিয়ে বার্সেলোনা তখন নাবিকহারা মাঝির মতো। কোচ হয়ে দৃশ্যপটে এলেন ‘আনকোরা’ পেপ গার্দিওলা। এসেই দলকে জেতাতে থাকলেন একের পর এক শিরোপা। কিন্তু বার্সার এমন সাফল্যের পেছনে স্প্যানিশ কোচের কোনো অবদানই দেখতে পাচ্ছেন না দলটার চ্যাম্পিয়নস লিগজয়ী সাবেক স্ট্রাইকার রিস্টো স্টইচকভ।

গার্দিওলা না এলেও ওই রকম স্কোয়াড নিয়ে বার্সেলোনা ঠিকই একের পর এক শিরোপা জিতত বলে মনে করছেন বুলগেরিয়ার এই সাবেক তারকা, ‘বার্সেলোনা তখন এমনিতেই প্রস্তুত (বড় কিছু অর্জনের জন্য)। পেপ গার্দিওলার কাজ তাই অনেক সহজ ছিল, কারণ সে দলের ভেতরটা বেশ ভালোভাবে চিনত।’

মূল দলের দায়িত্ব নেওয়ার আগে বার্সেলোনার যুব প্রকল্পের কোচ ছিলেন গার্দিওলা, আর এটাও গার্দিওলাকে বার্সেলোনার হয়ে সাফল্য পেতে বেশ সাহায্য করেছে বলে মনে করেন স্টইচকভ, ‘ক্লাবের যুব প্রকল্প ও দর্শন সম্পর্কে তাঁর (গার্দিওলা) বেশ ভালো ধারণা ছিল। পেপ গার্দিওলা যে স্কোয়াড পেয়েছিল, তা মূলত ওর আগের কোচ ফ্রাঙ্ক রাইকার্ডের তৈরি করে দেওয়া। গার্দিওলা না এলেও ওই স্কোয়াড অসাধারণ কিছু অর্জন করত। ট্রফি জিতত।’

ট্রফি জেতার উপযুক্ত সব খেলোয়াড় আগে থেকেই বার্সেলোনায় ছিল বলে মনে করেন বুলগেরিয়ার সাবেক এই স্ট্রাইকার, ‘থিয়েরি অঁরি, রাফায়েল মার্কেজ, রোনালদিনহো, স্যামুয়েল ইতো, কার্লেস পুয়োল ও ভিক্টর ভালদেসের মতো খেলোয়াড়েরা আগে থেকেই ছিল সেখানে। কিছু খেলোয়াড়কে যুব প্রকল্প থেকে তুলে আনতে হয়েছিল, যেমন লিওনেল মেসি ও পেদ্রো রদ্রিগেজ। ইনিয়েস্তা তো আগে থেকেই ছিল। ব্যস, তাতেই দলটা দাঁড়িয়ে যায়।’

পেপ গার্দিওলার অধীনে বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতে দুবার। স্প্যানিশ লিগ ও সুপার কাপ জিতেছেন তিনবার করে। দুবার করে জিতেছেন কোপা দেল রে, ক্লাব বিশ্বকাপ ও উয়েফা সুপার কাপ। এমনিতেই খ্যাপাটে বলে পরিচিত স্টইচকভ এর আগেও বিতর্কিত অনেক মন্তব্য করে আলোচনায় এসেছিলেন। দেখা যাক, এই মন্তব্যের পর গার্দিওলার পক্ষ থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায় কি না!

About admin

Check Also

খেলা শুরু হলে মানুষের করোনা ভীতি কেটে যাবে: পিটারসেন

মহামারী আকার ধারণ করা করোনাভাইরাসের সংক্রমণে প্রতিদিনই অসংখ্য মানুষের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে। এমন সংবাদে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *